মেনু নির্বাচন করুন

খাল ও নদী

মালুচী খাল

আরুয়ার অর্ন্তভূক্ত মালুচী খালটি ছোট পাচুরিয়া,বড়কোকরন্দ ও বাউলীকান্দা মৌজার পাশ দিয়ে হরিরামপুর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের মালুচী গ্রাম বরাবর বহমান ছিল। অনেক বড় বড় ছাদি নৌকা লঞ্চ ঐ খাল দিয়ে চলাচল করতো। কিন্ত বর্তমানে খালটির মাঝে ২ঠি বাধ দেওয়ায় খালটি সৌযান চলাচলের কোন ব্যবস্থা নেই।

আরুয়া খাল

পদ্মা নদীর সংযোগ থেকে আরুয়া খালটি আরুয়া বিলের মাঝ দিয়ে ইছামতি নদীতে মিশেছে। বর্তমানে খালটির মাঝে বাধ দেওয়ায় নৌযান চলাচল বন্দ আছে। তবে আরুয়া খালের বাকী অংশে জেলেদের মাছ ধরার জন্য এক শ্রেণীর কুচক্রী সন্ত্রাসী মহল ইউনিয়ন পরিষদকে অবহিত না করে- ১.৫০.০০০/- (একলক্ষ পঞ্চাশ হাজার) টাকা হাতিয়ে নেয়।

ঢালী বাড়ীর খাল

শালজানা ঢালী বাড়ীর খালটি পদ্মা নদী হইতে সরাসরি পদ্মা নদীতে মিশেছে।

নয়াকান্দী খাল

নয়াকান্দী খালটি পদ্মা নদী হইতে ইছামদি নদীতে মিশেছে।

পাটুরিয়া খাল

পাটুরিয়া খালটি বাধ দেওয়ায় বন্ধ আছে।

 

পদ্মা নদী

আরুয়ার চির ভয়ঙ্কর পদ্মা নদীটি আরুয়া ইউনিয়নের দক্ষিন দিক দিয়ে চির প্রবাহমান। প্রতি বছরই নিঠুর পদ্মা ভেঙ্গে নিচ্ছে আরুয়ার কৃষকের ঘর বাড়ী আবার পলি দ্বারা উর্বর করছে কিছু জমি।

 

ইছামতি নদী

ইছামতি নদীটি আরুয়া ইউনিয়নের উত্তর সীমান্ত বরাবর প্রবাহমান বর্ষায় পরিপূর্নতা পেলেও শীতকালে নদীটি বিভিন্ন স্থানে শুকিয়ে যায় ফলেনৌযান চলাচল করিতে পারে না।